প্রথম ওয়ার্ডপ্রেস পণ্যের অভিনব মার্কেটিং কৌশল

ওয়ার্ডপ্রেসই সম্ভবত ইন্টারনেট দুনিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট নির্মাণ টুলস। ওপেনসোর্স প্রকল্পের শুরুতে এটি মূলত ব্লগের জন্য ডিজাইন করা হয়েছিল। পরবর্তীতে যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইট তৈরির জন্য এটি ব্যবহৃত হয়।

ওয়ার্ডপ্রেস পৃথিবীর সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট নির্মান টুলসগুলোর একটি; Source: t thinks

শক্তিশালী প্লাগিন স্ট্রাকচার এবং সহজেই কার্যকরভাবে কোনো থিম তৈকঈর অসামান্য ক্ষমতা একে রাতারাতি জনপ্রিয় করে তুলেছে। থিম তৈরি, বিন্যাস এবং ব্যবহার সহজ হওয়ায় ওয়েবসাইট নির্মাণের জন্য বিপুল সংখ্যক মানুষ ওয়ার্ডপ্রেসের প্রতি ঝুঁকে পড়েছে।

আপনি ধারণা করতে পারেন এই বিপুলসংখ্যক মানুষ আসলে সংখ্যায় কত? পরিসংখ্যান শুনলে আপনি নিশ্চয়ই বিস্মিত হবেন। ডাবলু থ্রি টেকস্ (W3 Techs) নামের একটি সংস্থার জরিপ মতে বিশ্বব্যাপী ৩২ শতাংশ ওয়েবসাইট নির্মাণ করা হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার করে।

বিশ্বের ৩২ শতাংশ ওয়েবসাইট নির্মাণ করা হয়েছে ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার করে; Source: PC Mag

তবে বিপুল সংখ্যক ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেসে পরিচালিত হয় বলে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্য খুব দ্রুত এবং বেশি সংখ্যক বিক্রি হবে এমন নয়। ওয়ার্ডপ্রেস পণ্য বিক্রির যেমন ভালো কৌশল আছে, তেমনি এমন অনেক ভুল সিদ্ধান্ত আছে যা অনুসরণ করলে আপনি কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পাবেন না। প্রথমবার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্য বিক্রি করতে হলে বিশেষ কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হবে। ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের কাছে আপনার পণ্য ব্যবহারের বিশেষ কী কল্যাণকর দিক আছে তা স্পষ্ট করতে হবে।

আজকের নিবন্ধে প্রথমবার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্য বিক্রির তিনটি কার্যকর এবং বিশেষ কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হলো। আশা করা যায় এই পরামর্শগুলো অনুসরণ করলে প্রথমবার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্য বিক্রিতে কাঙ্ক্ষিত সাড়া ফেলতে সক্ষম হবেন।

বিনামূল্যে এবং প্রিমিয়াম সংস্করণ বিতরণ করুন

আপনি যদি কোনো পরিষেবা বা সফটওয়্যার বিক্রি করেন তাহলে আপনার পণ্যটি বিনামূল্যে এবং পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহার করার অনুমতি দিন। এতে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষের মনোযোগ আকর্ষণ করতে সক্ষম হবেন। আপনি সফটওয়্যারের মাধ্যমে যে সেবা প্রদান করতে চাইছেন মানুষের মধ্যে নিশ্চয়ই তার প্রয়োজনীয়তা আছে। কিন্তু তারা শুরুতে আপনার পণ্য নেওয়ার ব্যাপারে অধিক আগ্রহ দেখাবে না। কারণ তারা আপনার পণ্যের ব্যবহার সম্বন্ধে বিস্তারিত জানে না।

ওয়ার্ডপ্রেস থিম ব্যবহার এতটাই সহজ যে, যেকেউ এটি পরিচালনা করতে পারে; Source: WordPress

তাই বিনামূল্যে এবং পরীক্ষামূলক সেবা দিলে ধীরে ধীরে আপনার পণ্য জনপ্রিয় হয়ে উঠতে শুরু করবে। কেননা ব্যবহারকারীরা আপনার সফটওয়্যার ব্যবহার করে উপকৃত হবে এবং তার আপনজনকে জানাবে।

আপনার পণ্য কী কী সেবা দিতে সক্ষম তা সাধারণ মানুষের কাছে বোধগম্য করতে বিনামূল্যে এবং নির্দিষ্ট সময়ের জন্য প্রিমিয়াম সংস্করণ ব্যবহারের অনুমতি দিতে পারেন, অথবা বিশেষ বোনাস হিসাবে প্রিমিয়াম ভার্সন বিনামূল্যে ব্যবহারের অনুমতি দিতে পারেন।

আপনার ওয়েবসাইটে সবার দৃষ্টিগোচর হয় এমন জায়গায় বিনামূল্যে ব্যবহার উপযুক্ত সংস্করণের আইকন রাখুন। একটি পপ-আপ পেজে সহজেই নিবন্ধন করার সুযোগ দিন, অথবা ওয়েবসাইটের উপরে একটি প্রিমিয়াম সংস্করণ বার ব্যবহার করুন।

বিভক্তিকরণ পরীক্ষা বা এ/বি টেস্ট

ইংরেজি স্পিট বা বিভক্তিকরণ পরীক্ষার মাধ্যমেও আপনার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্যের বিপণন করতে পারেন। এই পরীক্ষাকে এ/বি পরীক্ষাও বলা হয়ে থাকে। তবে এ/বি বা বিভক্তিকরণ পরীক্ষায় ঝুঁকি আছে। কিন্তু ঝুঁকির ব্যাপারে বিচলিত হলে চলবে না। পণ্য বা সেবা বিক্রির মাধ্যমে ব্যবসা করতে হলে আপনাকে ঝুঁকি নিতেই হবে।

বিভক্তিকরণ বা এ/বি পরীক্ষা কীভাবে কাজ করে? আপনার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্য প্রদর্শন করার জন্য দুটি পৃথক পেজ, বিজ্ঞাপন বা প্ল্যাটফর্ম তৈরি করতে হবে, যেখানে ব্যবহারকারীরা আপনার পণ্যটি খুঁজে পাবে। এই প্রদর্শনী পেজটি বিজ্ঞাপনের মতো করে সাজাতে হবে।

এই বিভক্ত পেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ প্রচার করার মতো সকল মাধ্যমে প্রচার করুন।

স্পিট টেস্ট টেস্টের মাধ্যমে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস পণ্যের জনপ্রিয়তা যাচাই করুন; Source: Crazy Egg

স্বভাবতই আপনার গ্রাহক ও দর্শক দুটি ভিন্ন পেজে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যাবে। এখান থেকে গুগল এনালেটিক্স বা আপনার পছন্দনীয় ডাটা পর্যবেক্ষণ সফটওয়্যারের মাধ্যমে পরীক্ষার ফলাফল দেখতে পারেন। আসলে এই পরীক্ষার মাধ্যমে একই বিষয়ের দুটি ভিন্ন পেজের মধ্যে জনপ্রিয়তার তুলনামূলক চিত্র দেখা যায়।

অনেক বিপণনকারী সারা বছর জুড়ে একাধিক স্পিট টেস্ট পরিচালনা করেন, এবং সেইসব বিজ্ঞাপনগুলো বৃহৎ পরিসরে প্রচার করেন যা দর্শক জনপ্রিয়তার দিক থেকে শীর্ষে থাকা। এমনকি নতুন বিজ্ঞাপন তৈরির প্রয়োজন হলেও তারা স্পিট টেস্টে সর্বাধিক জনপ্রিয়তা পাওয়া বিজ্ঞাপনগুলো প্রচার করতে থাকে।

সুতরাং আপনিও ওয়ার্ডপ্রেস পণ্যের সর্বোচ্চ প্রচার নিশ্চিত করতে স্পিট টেস্ট বা এ/বি পরীক্ষা করতে পারেন।

এসইও এবং লিংক তৈরীর কৌশল ব্যবহার করুন

আপনি কোন ধরনের পণ্য বিক্রি করছেন সেটা মুখ্য বিষয় নয়, মুখ্য বিষয় হলো সাইটের এসইও। অনলাইনে যেকোনো পণ্য বিক্রি বা সাইট র্যাঙ্ক করানোর প্রধানতম উপায় হলো এসইও। তাছাড়া উপযুক্ত সাইট লিংকিং আপনার এসইও সহজ করবে এবং অনলাইন মার্কেটপ্লেসে সম্মানজনক ও শক্তিশালী অবস্থান তৈরি করতে সহায়তা করবে।

আপনার সাইটের এসইও ত্বরান্বিত করার অন্যতম সেরা উপায় হতে পারে গুগল কি-ওয়ার্ড প্ল্যানারের মতো কোনো অনলাইন টুলস বেছে নিয়ে আপনার সাইটের উপযুক্ত কি-ওয়ার্ড খুঁজে বের করা। আপনার সাইট ও পণ্যের উপযুক্ত কি-ওয়ার্ড নির্বাচন হয়ে গেলে ক্রেতা দর্শককে পণ্য সম্বন্ধে বিস্তারিত তথ্য দিতে এ সম্পর্কিত লেখা এবং অন্যান্য কনটেন্ট তৈরি করতে পারেন, যা পণ্যের বিজ্ঞাপন হিসেবে কাজ করবে।

গুগল কিওয়ার্ড প্ল্যানার ব্যবহার করে আপনার পণ্যের উপযুক্ত কীওয়ার্ড নির্বাচন করুন; Source: Pear Analytics

আপনার পণ্যটি গ্রাহকের কী কী সমস্যার সমাধান করবে, কীভাবে করবে, এবং তাদের জীবন কতটা সহজ করবে তা বিভিন্ন লেখা এবং কনটেন্টের মধ্যে তুলে ধরুন। আপনার পণ্যটি কেন বাজারে সেরা শুধু এটা প্রচার করলেই হবে না, বরং অন্যান্য প্রতিযোগী ব্যবসায়ীর চেয়ে কেন আপনার পণ্যটি বেশি ভালো তাও উল্লেখ করুন। ওয়াডপ্রেস পণ্যের বিশেষত্ব এবং অন্যান্য দিক বেশি প্রচার করুন।

আপনি যদি প্রথম ওয়ার্ডপ্রেস পণ্যের প্রচারে এই কৌশলগুলো ব্যবহার করেন তবে আপনি সহজেই অনলাইন মার্কেটপ্লেসে বাজার ধরতে সক্ষম হবেন। প্রথম পণ্য সঠিকভাবে বাজারজাত করতে পারলে অন্যান্য ওয়াডপ্রেস পণ্য বিক্রি করা আপনার জন্য আরও সহজ হবে।

Feature Image: PC Mag

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *